খলিশাখালির পলাতক ভূমিদস্যু ও সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন

কর্তৃক ferozsatkhira
০ মন্তব্য 35 ভিউজ

স্টাফ রিপোর্টার: সম্প্রতি পুনরুদ্ধার হওয়া সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার খলিশাখালির রেকর্ডিয় সম্পত্তি জবরদখল, চাঁদাবাজি, ডাকাতি ও দস্যুতার নের্তৃত্বে থাকা পলাতক ভূমিদস্যু ও সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। পুনরুদ্ধারকৃত ১৩২০ বিঘা রেকর্ডিয় জমির প্রায় তিন শতাধিক মালিকের আহ্বানে শুক্রবার সকাল ১০টায় উপজেলার প্রানকেন্দ্র পারুলিয়া শহীদ আবু রায়হান চত্বরে শান্তিপূর্ণভাবে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। এরআগে প্রায় দেড় বছরের জবরদখলের অবসান ঘটিয়ে গেল মঙ্গলবার প্রশাসনের সহযোগীতায় একাধিক সংঘবদ্ধ ডাকাত দল, ভূমিদস্যু ও সন্ত্রাসী বাহিনীর কবল থেকে খলিশাখালি নামক বিস্তৃর্ণ এসব জমি পুনরুদ্ধার করে ফের দখলে নিয়েছেন প্রকৃত মালিকেরা। ঘন্টাব্যাপী চলা এ মানববন্ধনে বক্তৃতা করেন নওয়াপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন সাহেব আলী, দেবহাটা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান শাওন, আহছানিয়া মিশনের স্বাস্থ্য সেক্টরের পরিচালক ইকবাল মাসুদ, পারুলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান মিন্নুর, শ্রমিক লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাশেদুল ইসলাম, নোড়ারচক-চারকুনি ভূমিহীন সংগ্রাম কমিটির সভাপতি আব্দুল গফফার, সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম, কাজী গোলাম ওয়ারেশ, ডা. নজরুল ইসলাম, আলহাজ্ব আনছার আলী, আব্দুল আজিজ, সুরুজ ওয়ারেশ প্রমূখ।
পুনরুদ্ধারকৃত জমির মালিকেরা তাদের বক্তৃতায় বলেন, গত বছরের ১০ সেপ্টেম্বর ভোররাতে নোড়ারচকের সন্ত্রাসী ইসমাইল মেম্বার, আনারুল, রবিউল, আকরাম ডাকাত, কালু ডাকাত, গফুর মাস্তন, আবুল হোসেন, রিপন, আসাদুল, সাইফুল, রফিকুলের নের্তৃত্বে মুহুর্মুহু গুলি ও বোমাবর্ষন করে তাদের প্রায় তিন’শ মালিকের রেকর্ডিয় ১৩২০ বিঘা জমি জবরদখল ও মৎস্য ঘেরগুলো লুট করে নেয় সন্ত্রাসী, ভূমিদস্যু ও ডাকাত দলের সদস্যরা। এরপর থেকে ওই খলিশাখালি জনপদকে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের দাগী অপরাধীদের আঁখড়া হিসেবে গড়ে তুলেছিল সন্ত্রাসীরা। সম্প্রতি প্রশাসনের একের পর এক অভিযানে দফায় দফায় এসব বাহিনীর কিছু সন্ত্রাসী ও ডাকাত অস্ত্রসহ গ্রেফতার এবং মালিকপক্ষ তাদের জমি ফিরে পেলেও অদ্যবধি এসব দস্যু বাহিনীর প্রধানরা রয়ে গেছে ধরাছোঁয়ার বাইরে। তারা আরও বলেন, আত্মগোপনে থাকা সন্ত্রাসী, ভূমিদস্যু ও ডাকাতরা বর্তমানে নিজেদের ‘ভূমিহীন’ আখ্যা দিয়ে প্রশাসনকে বিভ্রান্ত ও বোকা বানানোর প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তাছাড়া এসব সন্ত্রাসীরা ফের সুসংগঠিত হয়ে ওই জনপদকে জবরদখলের হুমকি দিয়ে যাচ্ছে উল্লেখ করে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি সমুন্নত এবং দেবহাটাকে সন্ত্রাসমুক্ত রাখতে অবিলম্বে এসব সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবি জানান এসব জমির মালিকেরা।

সম্পর্কিত পোস্ট

মতামত দিন