জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে জেলা বিএনপির আলোচনা সভা

কর্তৃক ferozsatkhira
০ মন্তব্য 178 ভিউজ

ফিরোজ হোসেন, সাতক্ষীরা ঃ
ঐতিহাসিক ৭ নভেম্বর জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি সাতক্ষীরা জেলা শাখার উদ্যোগে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার বিকাল ৪ টায় শহরের নিরিবিলি কমিউনিটি সেন্টারে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় জেলা বিএনপির আহবায়ক এ্যাডভোকেট সৈয়দ ইফতেখার আলীর সভাপতিত্বে ও জেলা বিএনপির সদস্য সচিব ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল আলিমের সঞ্চালনায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক হাবিবুর রহমান হাবিব, শহর বিএনপির সদস্য সচিব পৌর মেয়র তাজকিন আহমেদ চিশতি, জাতীয়তাবাদী শ্রমিক দলের সভাপতি আব্দুস সামাদ, সদর উপজেলা বিএনপির আহবায়ক এডভোকেট নুরুল ইসলাম, সদস্য সচিব নুরে আলম ছিদ্দিকী, কালিগঞ্জ উপজেলা বিএনপির আহবায়ক এবাদুল হক, আশাশুনি উপজেলা বিএনপির আহবায়ক স. ম হেদায়েতুল ইসলাম, সদস্য সচিব মশিউল হুদা তুহিন, শ্যামনগর উপজেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক সুলাইমান কবির, দেবহাটা উপজেলা বিএনপির মহিউদ্দিন সিদ্দিকী, জেলা যুবদলের সভাপতি আবু জাহিদ ডাবলু, সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান মুকুল, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট কামরুজ্জামান ভূট্রো,কৃষক দলের আহবায়ক সালাউদ্দিন লিটন, জাতীয়তা আইনজীবী ফোরামের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এ্যাডভোকেট এবি এম সেলিম,। এসময় উপস্থিত ছিলেন মৎস্যজীবী দলের যুগ্ম আহবায়ক মাহমুদুল হক, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সহ সভাপতি মো. সোহরাব হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক প্রভাষক আনারুল ইসলাম,শহর সদস্য সচিব আজিজুর রহমান সেলিম, সদর থানা স্বেচ্ছাসেবক দলের সদস্য সচিব জাকির হোসেন আপিল, সাইফুল্লাহ আল কাফি, সাতক্ষীরা শহর ছাত্রদলের সদস্য সচিব শাহিন ইসলাম,যুগ্ম আহভায়ক মহিউদ্দিন কুরাইশি, যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল্লাহ আল আমিন,সদস্য নয়ন হোসেনসহ বিএনপির অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ । এসময় বক্তারা বলেন, আগামী সংসদ নির্বাচনের আগে সংসদ ভেঙ্গে দিতে হবে। বর্তমান নির্বাচন কমিশনের অধীনে কোন নির্বাচন হতে দেওয়া হবে না। ১০ ডিসেম্বরে দেশে গণতন্ত্রকামী জনতা রাজপথে নেমে আসবে। এই সরকারকে বিদায় নিতে হবে। দেশের যেখানে জনসমাবেশ হচ্ছে সেখানে জনতার ঢল দেখে আওয়ামী সরকার দিশেহারা। তারা আন্দোলনকে দমাতে বেগম খালেদা জিয়াকে জেল খানায় দেওয়ার ভয় দেখাচ্ছে। বক্তারা বলেন, বিএনপির পিঠ দেয়ালে ঠেকেছে। আর বসে থাকার সময় নেই। গনতন্ত্র রক্ষায় এই সরকারকে বিদায় নিতে হবে।

সম্পর্কিত পোস্ট

মতামত দিন