নিজস্ব প্রতিনিধি: দেবহাটার ভূমিহীন জনপদ চারকুনিতে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কার্যালয় ভাংচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার রাত সাড়ে ৮ টার দিকে এঘটনা ঘটে। এঘটনায় দেবহাটা উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের ত্রান বিষয়ক সম্পাদক ইসমাইল হোসেন বাদী হয়ে ১১ জনের নাম উল্লেখ সহ অজ্ঞাতনামা ২০/২৫ জনের বিরুদ্ধে দেবহাটা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, নোড়ারচক-চারকুনি ভূমিহীন জনপদে বাদী ইসমাইল হোসেন ও হামলাকারীদের পৃথক দুটি গ্রুপ থাকায় দীর্ঘদিন ধরে তাদের মধ্যে দ্বন্দ চলে আসছিল। পারুলিয়া ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের ওই আওয়ামী লীগ অফিসটিতে ইসমাইল হোসেনের পক্ষের নেতাকর্মীরা দলীয় কার্যক্রম পরিচালনা করায় সোমবার রাতে স্থানীয় মৃত মোহর আলী মোড়লের ছেলে ইয়াদ আলী মোড়ল, ইছাদ আলী মোড়ল, জামায়ত আলী মোড়ল, ইয়াদ মোড়লের ছেলে শরিফুল ইসলাম, শামীম হোসেন, ইছাদ মোড়লের ছেলে আনারুল, আশিক, জামায়ত মোড়লের ছেলে শফিকুল ইসলাম, আসাদুল ইসলাম, মোকছেদ আলী গাজীর ছেলে আনিছুল ও রজব আলীসহ অজ্ঞাত ২০/২৫জন ব্যাক্তি লাঠিশোঠা ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে ওই আওয়ামী লীগ অফিসে হামলা ও ভাংচুর করে। এসময় বাঁধা দিতে গেলে ইয়াছিন আলী নামের এক ব্যাক্তিকে ধারালো অস্ত্র নিয়ে তাড়া করে হামলাকারীরা। একপর্যায়ে হামলাকারীরা অফিসটির কাঠের বেড়া, জানালা, সাইনবোর্ডসহ অন্যান্য আসবাবপত্র ভাংচুর করে বলেও অভিযোগ উল্লেখ করা হয়েছে। পরে বিষয়টি জানতে পেরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন পুলিশ সদস্যরা।
এব্যাপারে দেবহাটা থানার ওসি বিপ্লব কুমার সাহা বলেন, ভূমিহীন জনপদের দুটি গ্রুপের কোন্দলকে কেন্দ্র করে হামলার ঘটনাটি ঘটেছে। দুপক্ষই পাল্টা অভিযোগ দায়ের করেছেন। তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান ওসি।

সম্পর্কিত পোস্ট

মতামত দিন