প্রায় অর্ধ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ সি এন্ড এফ এজেন্ট এসোসিয়েশনের এডহক কমিটির সভাপতির আহ্বায়কের বিরুদ্ধে

কর্তৃক ferozsatkhira
০ মন্তব্য 65 ভিউজ

নিজস্ব প্রতিবেদক ঃ
সাতক্ষীরার ভোমরা কাষ্টমস ক্লিয়ারিং এন্ড ফরওয়ার্ডিং এজেন্টস এ্যাসোসিয়েশনের(রেজিঃ নং- খুলনা-২০৪৬) এডহক কমিটির চারজন সদস্য প্রধান আহ্বায়কের বিরুদ্ধে একতরফা সিদ্ধান্ত গ্রহন, দূর্ণীতি, স্বেচ্ছাচারিতা, অনিয়ম ও অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ এনে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রনালয়ের খুলনা বিভাগীয় শ্রম দপ্তরে একটি লিখিত অভিযোগপত্র দাখিল করে। প্রাপ্ত অভিযোগপত্র থেকে জানা যায়, এডহক কমিটির আহ্বায়ক এজাজ আহমেদ স্বপন এ্যাসোসিয়েশনের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে কমিটির অন্যান্য সদস্যদের অবহিত না করে একতরফাভাবে সিদ্ধান্ত গ্রহন করে থাকেন। এডহক কমিটির অন্যান্য সদস্যদের সিদ্ধান্ত ব্যতিত ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন এবং নগদ অর্থ কালেকশন করারও অভিযোগ আনা হয়। চলতি অর্থবছরের ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২২ তারিখ পর্যন্ত বিভিন্ন খাত থেকে এ্যাসোসিয়েশনের ৪৮ লক্ষ ৪৯ হাজার ৯২৫ টাকা আয় হলেও বর্তমানে এ্যাসোসিয়েশনের অর্থ তহবিল (একাউন্ট) শূণ্যের খাতে। এ বিপুল পরিমান অর্থ প্রধান আহ্বায়ক কমিটির অন্যান্য সদস্যদের না জানিয়ে ক্ষমতাবলে এককভাবে উত্তোলন করে আত্মসাৎ করেছেন বলেও অভিযোগ আনা হয়েছে। তার স্বেচ্ছাচারিতা ও একক সিদ্ধান্তের কারণে এডহক কমিটির কার্যক্রম পরিচালনা করা অসম্ভব হয়ে পড়েছে। ভোমরা কাষ্টমস ক্লিয়ারিং এন্ড ফরওয়ার্ডিং এজেন্টস এ্যাসোসিয়েশনের নির্বাচন পরিচালনার পদক্ষেপ গ্রহনে বর্তমান এডহক কমিটির সদস্য মিজানুর রহমানকে আহ্বায়ক হিসাবে দায়িত্ব পালনের অনুমতি দিয়ে এবং বর্তমান আহ্বায়ক শেখ এজাজ আহমেদের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগসমূহের বিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য খুলনা বিভাগীয় শ্রম দপ্তরে হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ভুক্তভোগী এডহক কমিটির চারজন সদস্য। অভিযোগকারীরা হলেন এডহক কমিটির আশরাফুজ্জামান আশু, রামকৃষ্ণ চক্রবর্তী, মিজানুর রহমান এবং এ.এস.এম মাকছুদ খান। এদিকে ভোমরা কাষ্টমস ক্লিয়ারিং এন্ড ফরওয়ার্ডিং এজেন্টস এ্যাসোসিয়েশনের কার্যনির্বাহী কমিটির নির্বাচন অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে এ.এস.এম মাকছুদ খান খুলনা বিভাগীয় শ্রম আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন(যার নং- শ্রম/০১/২০২২)। গত ২৩ মার্চ ২০২২ তারিখে শ্রম আদালত থেকে একটি নিরপেক্ষ নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠন করে সঠিক ভোটার তালিকা প্রণয়ন করার মধ্য দিয়ে পূনঃ তফশীল ঘোষনা করে আগামী ৬০ দিনের মধ্যে নির্বাচন সম্পন্ন করার আদেশ দেওয়া হয়। এছাড়া হাইকোর্টের রীট পিটিশন নং-৯৭৯৯/২১ এর বিগত ০৮ নভেম্বর ২০২১ তারিখে নির্দেশনা প্রতিপালন পূর্বক নির্বাচন সংশ্লিষ্ট সকল কার্যক্রম সার্বিক তত্ত্বাবধান করে ৩১ মে ২০২২ তারিখে খুলনা বিভাগীয় শ্রম আদালতে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য পরিচালক ও রেজিস্টার অব ট্রেড ইউনিয়ন্স, খুলনাকে নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে। উচ্চ আদালতের নির্দেশনা মোতাবেক যথাসময়ে নির্বাচন সম্পন্ন হওয়া আবশ্যক। এদিকে ভোমরা স্থলবন্দরে শ্রম পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার স্বার্থে ভোমরা কাষ্টমস ক্লিয়ারিং এন্ড ফরওয়ার্ডিং এজেন্টস এ্যাসোসিয়েশনের এডহক কমিটির আহ্বায়ক এবং অন্য চার সদস্যদের মধ্যে সমন্বয়হীনতা এবং বিরোধ পরিলক্ষিত হওয়ায় অবাধ সুষ্ঠ নির্বাচন অনুষ্ঠানের ক্ষেত্রে বাধা হয়ে দাঁড়ায়। এছাড়াও সৃষ্ট উদ্ভুত পরিস্থিতির কারণে এ্যাসোসিয়েশনের সার্বিক সুষ্ঠ কর্মকান্ড মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে বলেও অভিযোগ আনা হয়। এদিকে ভোমরা স্থলবন্দরের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক সিএন্ডএফ এজেন্টসরা জানান, এডহক কমিটির আহ্বায়ক ও অন্যান্য সদস্যদের মধ্যে বিপুল পরিমান অর্থ ভাগ বাটোয়ারা ও বণ্টন নিয়ে চলে আসছে অভ্যন্তরীন দ্বন্দ। ফলে পর্যায়ক্রমে বাড়তে থাকে সমন্বয়হীনতা ও পারস্পারিক মতবিরোধ। যা অবাধ ও সুষ্ঠ নির্বাচন অনুষ্ঠান বাস্তবায়নে পড়ছে বাধা। এডহক কমিটির বর্তমান সৃষ্ট পরিস্থিতির কারনে এ্যাসোসিয়েশনের সার্বিক সুষ্ঠ কর্মকান্ড মারাত্মকভাবে ব্যাহত হওয়ায় সিএন্ডএফ ব্যবসায়ীরা পড়েছে মহা বিপাকে। সুতরাং ভোমরা বন্দরটি এখন মাঝিবিহীন নৌকার দশায় পরিণত হয়েছে। সুদক্ষ নেতৃত্বের অভাবে আমদানী রপ্তানী বাণিজ্য অনেকাংশে হ্রাস পেয়ে রাজস্ব উন্নয়ন বাধাগ্রস্থ হচ্ছে। একটি নির্ভরযোগ্য সূত্রে প্রকাশ, ভোমরা কাষ্টমস সিএন্ডএফ এ্যাসোসিয়েশনের সিএন্ডএফ ব্যবসায়ীদের প্রত্যাশিত ত্রি-বার্ষিক সাধারন নির্বাচনকে বানচাল করতে চলছে গভীর ষড়যন্ত্র। কিন্তু সকল চক্রান্ত ও ষড়যন্ত্রকে রুখে দিয়ে গণতান্ত্রিক মতাদর্শে অবাধ সুষ্ঠ নিরপেক্ষ ভোটাধিকার প্রয়োগের মাধ্যমে একটি শক্তিশালী কার্যনির্বাহী পরিষদ গঠন করার জোর প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে বলে ভুক্তভোগী সিএন্ডএফ এজেন্টসরা জানান। এদিকে এডহক কমিটির অনিয়ম, দূর্ণীতি ও স্বেচ্ছাচারিতার কারণে আস্থা রাখতে পারছেনা সিএন্ডএফ ব্যবসায়ীরা। তারা চায় গণতান্ত্রিক উপায়ে ভোটাধিকার প্রয়োগের মাধ্যমে একটি দক্ষ ও শক্তিশালী কার্যনির্বাহী কমিটি। খুলনা বিভাগীয় শ্রম আদালত, খুলনা শ্রম ০১/২০২২ নং মামলার আদেশের প্রেক্ষিতে পরিচালক ও রেজিস্টার অব ইউনিয়ন্স, বিভাগীয় শ্রম দপ্তর খুলনা গত ২৭ মার্চ ২০২২ তারিখে ৭২৭ নং পত্রের মাধ্যমে কার্যনির্বাহী কমিটির নির্বাচন নির্ধারিত ৬০ দিন সময়ের মধ্যে সম্পন্ন করার নির্দেশনা প্রদানের পরিপ্রেক্ষিতে আগামী ১৬ এপ্রিল ২০২২ বেলা ২ টায় সিএন্ডএফ এজেন্টস এ্যাসোসিয়েশন ভবন কার্যালয়ে বিশেষ নির্বাচনী সাধারন সভা আহ্বান করা হয়েছে। এ্যাসোসিয়েশনের এডহক কমিটির আহ্বায়ক এজাজ আহমেদ স্বপন স্বাক্ষরিত ঘোষনাপত্র থেকে এ তথ্য জানা গেছে। এ বিশেষ সাধারন সভায় কোন প্রকার বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির মাধ্যমে নির্বাচন বানচালের চেষ্টা চালালে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা করছেন সিএন্ডএফ ব্যবসায়ীরা

সম্পর্কিত পোস্ট

মতামত দিন