ন্যাশনাল ডেস্ক ঃ
বীর মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি পেলেন আরও ৬১ জন শহিদ। জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের ৭০তম সভার আলোচ্যসূচির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ২১ মার্চ এ বিষয়ে বেসামরিক গেজেট জারি করা হয়েছে। এখন শহিদ মুক্তিযোদ্ধাদের সংখ্যা হয়েছে ৩ হাজার ২৯৫ জন। এছাড়াও কুষ্টিয়ার ১০ মুক্তিযোদ্ধার ভুয়া সনদ বাতিল করা হয়েছে। বেসামরিক এই গেজেট বাতিল করে আরেকটি গেজেট জারি করা হয়েছে। এটাও করা হয়েছে জামুকার ৭০তম সভার আলোচ্যসূচির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী।

বীর মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি পেলেন যে ৬১ শহিদ : চাঁপাইনবাবগঞ্জের মো. নুরুল ইসলাম, মো. আ. সাত্তার, মৌলভীবাজারের আব্দুর নুর, মখলিছ মিয়া, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সৈয়দ সিদ্দিকুর রহমান, মো. আব্দুল কাদের মিয়া, ইদ্রিস মিয়া, নোয়াখালীর সাফায়েত উল্লা, গোপালগঞ্চের মো. হান্নান শেখ, মো. আ. হালিম মিয়া, এলাহী শেখ, ঠাকুরগাঁওয়ের মো. শরীফ উদ্দিন, মো. রহিম উদ্দিন (আনসার), মুনসেফ আলী, সিলেটের আ. হালিম, আব্দুস সালাম, আব্দুস আহাদ, আ. রব, ঝিনাইদহের মোহাম্মদ আলী, নজরুল ইসলাম, সুনামগঞ্জের ফিরোজ আলী, এজেড জাহাঙ্গীর পাশা, হবিগঞ্জের মো. খোরশেদ আলী, তোতা মিয়া (আনসার), কুড়িগ্রামের আফান আলী, হযরত আলী, চটগ্রামের মো. আমির, নাজিম উদ্দিন খান, নুরুল আনোয়ার, নওগাঁর আ. জব্বার, গোলাম সাকলাইন, ওমর আলী, নড়াইলের আ. সবুর, কুষ্টিয়ার আজিজুল হক, সফর আলী, তোফাজ্জল হোসেন, শেরপুরের ইদ্রিস আলী, সফির উদ্দিন, গাজীপুরের রায়মোহন বর্মণ, চুয়াডাঙ্গার মইজুদ্দিন বিশ্বাস, গাইবান্ধার নাজিম উদ্দিন, পঞ্চগড়ের হাবিবুর রহমান, সমারু, খুলনার ইসরাফিল বন্দ, জামালপুরের নুরুল ইসলাম, যশোরের সেলিম রেজা, মাহফুজ উল হক, রফিক মিয়া (আনসার), ওমর ফারুক, মোস্তফা কামাল, গোলাম কবির, আ. বারিক শেখ, মনির উদ্দিন, সাতক্ষীরার মো. সাহাদাৎ হোসেন, জাকারিয়া (আনসার), মুনছুর আলী বরিশালের আব্দুর রশিদ সিকদার, রাজশাহীর খন্দকার মো. আব্দুল মোনায়েম (মঞ্জুর), টাঙ্গালের শুকুর মামুদ মন্ডল, ঢাকার কেরানীগঞ্জের হারুনুর রশিদ।

যাদের সনদ বাতিল : কুষ্টিয়ার মো. রবিউল ইসলাম, মো. আতিউর রহমান, মো. শহিদুল আলম, মো. আলাউদ্দিন প্রমাণিক, মো. আনসার আলী, মো. মহসিন আলী, মো. রবিউল হাসান, মো. ইয়ার উদ্দিন, মো. ফয়জুল হক ও মো. আব্দুল মজিদের সনদ বাতিল করা হয়েছে।

সম্পর্কিত পোস্ট

মতামত দিন