ভোমরায় সাংবাদিক পরিচয়দানকারী মোতালেবের কাছ থেকে অবৈধ লাগেজ পন্য উদ্ধার করল বিজিবি

কর্তৃক ferozsatkhira
০ মন্তব্য 58 ভিউজ

স্টাফ রিপোর্টারঃ
সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দরে সাংবাদিক পরিচয়ের আড়ালে চলছে ট্যাক্স ফাঁকির অবাধ লাগেজ বানিজ্য। বন্দর সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দেওয়ার আগেই ভোমরা ক্যাম্পের বিজিবি সদস্যদের অভিযানে জব্দ হলো ভারত থেকে আমদানী হওয়া হাজার হাজার টাকার লাগেজ পন্য। আর এই অবৈধ লাগেজ পন্যের মূল হোতা সাংবাদিক পরিচয়দানকারী আব্দুল মোতালেব। সে দীর্ঘদিন যাবত সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে কখনো বা স্থানীয় প্রশাসনকে ম্যানেজ করে লাগেজ বানিজ্য চালিয়ে যাচ্ছে। এমন অভিযোগ করেছেন বন্দর সংশ্লিষ্ট একাধিক প্রত্যক্ষদর্শীরা। শনিবার বেলা ১২টায় বন্দর এলাকায় সাংবাদিক পরিচয়দানকারী দালাল আব্দুল মোতালেবসহ কয়েকজনের লাগেজ তল্লাশি চালায়। তল্লাশির এক পর্যায়ে মোতালেবের লাগেজ থেকে ১৫-২০ কেজি ওজনের ভারতের উন্নতমানের আগরবাতির খালি প্যাকেট উদ্ধার করে। অন্যদের কাছ থেকে দামী প্রসাধনী দ্রব্য উদ্ধার করে বিজিবি জোয়ানরা। এ বিষয়ে জানতে চাইলে ভোমরা ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার ওহিদুল জানান, জনৈক সাংবাদিক পরিচয়দানকারীর কাছ থেকে ১৫-২০ কেজি ওজনের ভারতের উন্নতমানের আগরবাতির খালি প্যাকেট উদ্ধার করা হয়েছে এবং অন্যদের নিকট থেকেও দামী প্রসাধনী দ্রব্য উদ্ধার করা হয়। এদিকে জনৈক সাংবাদিক পরিচয়দানকারী লাগেজ ব্যবসায়ীর নাম জানতে চাইলে বিজিবির এফএস সদস্য জাহাঙ্গীর জানান, যার কাছ থেকে এই অবৈধ পন্যসামগ্রী উদ্ধার করা হয়েছে তার নাম আব্দুল মোতালেব। এছাড়া ভোমরা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আনারুল ইসলাম গাজীর সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, বহিরাগত সাংবাদিক পরিচয়দানকারী আব্দুল মোতালেবের অত্যাচারে বন্দর এলাকা অতিষ্ঠ হয়ে উঠছে। নিজের পকেট গরম করতে সে এখন ট্যাক্স ফাঁকির লাগেজ বানিজ্যে নেমে পড়েছে। তিনি আরো জানান, সম্প্রতি ভোমরা কাষ্টমস থেকে লাগেজ পন্য চুরি করার অপরাধে তাকে নিয়ে একটি শালিস ও করি। এই লাগেজ চোরের সঙ্গে রয়েছে আরো অনেক সাংবাদিক পরিচয়দানকারী ব্যক্তি। যারা সরাসরি লাগেজ দালালীর সঙ্গে যুক্ত। ইতোমধ্যে লাগেজের অবৈধ বানিজ্য রুখতে অভিযান চালাচ্ছে ভোমরা ক্যাম্পের বিজিবি সদস্যরা। ভোমরার বন্দর সীমান্তে বৈধপথে আসা সরকারের ট্যাক্স ফাঁকির অবৈধ বানিজ্য বন্ধের দাবী জানিয়েছেন বন্দর এলাকার সচেতন মহল।

সম্পর্কিত পোস্ট

মতামত দিন