শেখ কামালের ৭৩তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে প্রতিকৃতিতে পূষ্পার্ঘ্য অর্পণ, ক্রীড়াঙ্গণে বিশেষ অবদানের জন্য সম্মাননা ও আলোচনা

কর্তৃক ferozsatkhira
০ মন্তব্য 39 ভিউজ

নিজস্ব প্রতিবেদক ঃ ক্রীড়াঙ্গণের রুপকারসহ বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী ছিলেন
বঙ্গবন্ধু পুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামাল- বীর
মুক্তিযোদ্ধা এমপি রবি
মাহফিজুল ইসলাম আককাজ : বাংলাদেশের ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনের উজ্জ্বল
নক্ষত্র জাতির পিতার জ্যেষ্ঠ পুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ
কামালের ৭৩তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে প্রতিকৃতিতে পূষ্পার্ঘ্য অর্পণ,
ক্রীড়াঙ্গণে বিশেষ অবদানের জন্য সম্মাননা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
শুক্রবার (০৫ আগস্ট) সকাল ১০টায় সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসনের আয়োজনে জেলা
প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির এঁর
সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাতক্ষীরা-২
আসনের সংসদ সদস্য নৌ-কমান্ডো ০০০১ বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ
রবি। প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি রবি বলেন,‘১৯৭৫ সালের ১৫-ই আগস্টের যে
বর্বর হত্যাকান্ড হয়েছিল। পৃথিবীর ইতিহাসে এমন জঘর্ণ্যতম হত্যাকান্ড
হয়নি। বাংলাদেশের সার্বভৌমত্ব ও স্বাধীনতাকে ধ্বংশ করতে এ হত্যাকান্ড
ঘটিয়েছিল। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশে এই দ্বিতীয় বারের মত জাতীয়ভাবে জাতির
পিতার জ্যেষ্ঠ পুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের
জন্মবার্ষিকী পালিত হচ্ছে। বাংলাদেশের আধুনিক ক্রীড়াঙ্গণের রুপকারসহ
বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী ছিলেন বঙ্গবন্ধু পুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদ
ক্যাপ্টেন শেখ কামাল। বীর মুক্তিযোদ্ধা, সমাজ সেবক, সংস্কৃতি কর্মী,
ছিলেন ক্রীড়া সংগঠক। দেশের প্রধানমন্ত্রীর সন্তান হলেও ছিলো না তার কোনো
অহংকার। মিশতেন সাধারণ মানুষের সঙ্গে, সাধারণভাবে। ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক
অঙ্গনের উজ্জ্বল নক্ষত্র জাতির পিতার জ্যেষ্ঠ পুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা
শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের ৭৩তম জন্মদিনে তার রুহের মাগফিরাত কামনা করেন
বীর মুক্তিযোদ্ধা এমপি রবি।’
বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাতক্ষীরা জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ
মোস্তাফিজুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সজীব খান, স্থানীয় সরকার বিভাগ
সাতক্ষীরা’র উপপরিচালক মাশরুবা ফেরদৌস, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট রেজা
রশীদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) কাজী আরিফুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা
প্রশাসক (রাজস্ব) তানজিল্লুর রহমান, আরডিসি কৃষ্ণা রায়, সদর উপজেলা
নির্বাহী অফিসার ফাতেমা-তুজ-জোহরা প্রমুখ। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে
বক্তব্য রাখেন জেলা ক্রীড়া সংস্থার ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ
হাসান মুক্তি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক ফিফা রেফারী তৈয়েব হাসান
বাবু। এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি সান্টু চৌধুরী,
জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী আকতার হোসেন, মহিলা বিষয়ক
সম্পাদক শিমুন শামস্, জেলা ক্রীড়া অফিসার খালিদ জাহাঙ্গীর, জেলা ক্রীড়া
সংস্থার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মীর তাজুল ইসলাম রিপন, জেলা মহিলা ক্রীড়া
সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ফারহা দীবা খান সাথী, জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের
সভাপতি ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ নাসেরুল হক, জেলা ফুটবল
এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আরিফ হাসান প্রিন্স, ট্রেজারার শেখ
মাসুদ আলী, জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাহী সদস্য ইকবল কবির খান বাপ্পি,
মো. রুহুল আমিন, আলহাজ¦ আ.ক.ম আক্তারুজ্জামান মুকুল, শেখ হেদায়েতুল
ইসলাম, স.ম সেলিম রেজা, রেফারী পিপুল খান, আবুল কাশেম বাবর আলী প্রমুখ।
অনুষ্ঠানের শুরুতে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে বীর মুক্তিযোদ্ধা
শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের ৭৩তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে প্রতিকৃতিতে
পূষ্পার্ঘ্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয় এবং আলোচনা সভা শেষে জেলার
ক্রীড়াঙ্গণে বিশেষ অবদানের জন্য ক্রীড়াবিদ ও ক্রীড়া সংগঠককে সম্মাননা
ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। সমগ্র অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন জেলা শিল্পকলা
একাডেমির সাধারণ সম্পাদক ও পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ
সম্পাদক শেখ মুশফিকুর রহমান মিল্টন। এসময় জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা ও
জেলার ক্রীড়া ব্যক্তিত্বরা উপস্থিত ছিলেন।

সম্পর্কিত পোস্ট

মতামত দিন