সাতক্ষীরার কলারোয়ায় পুকুরে সাঁতার কাটতে গিয়ে পুলিশের এসআই রাশেদুলের মৃত্যু

কর্তৃক ferozsatkhira
০ মন্তব্য 97 ভিউজ

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ
পুকুরে গোসল করতে গিয়ে সাঁতার কাটার সময় হার্ট অ্যাটাক করে সাতক্ষীরার কলারোয়া থানা পুলিশের এসআই রশেদুল ইসলাম (৪০) মারা গেছেন। রোববার সকাল সাড়ে নয়টার দিকে এঘটনা ঘটে।
এসআই রশেদুল ইসলাম মেহেরপুর জেলার গাংনী উপজেলার গোপালনগর গ্রামের মৃত লোকমান হোসেনের ছেলে।
কলারোয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা ডাক্তার শফিকুল ইসলাম জানান, সকাল নয়টা ৫০ মিনিটের দিকে কলারোয়া থানা পুলিশ ও কলারোয়া ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা অচেতন অবস্থায় এসআই রশেদুল ইসলামকে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। প্রাথমিক চিকিৎসা ও পরীক্ষা করে নিশ্চিত হওয়া যায়,তিনি পানিতে সাতার কাটার সময়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হন। হাসপাতালের সকল কার্যক্রম শেষে মরদেহটি কলারোয়া থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।
কলারোয়া ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স এর স্টেশন অফিসার মোঃ ওবায়দুল্লাহ বলেন, এসআই রাশেদ গোসল করার সময় পানিতে ডুবে গেলে তাকে আর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না এমন সংবাদে তার নেতৃত্বে একটি চৌকস টিম ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পুকুর থেকে দুই মিনিটের মধ্যেই অচেতন অবস্থায় তাকে উদ্ধার করা হয়। পরে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়।
কলারোয়া থানা অফিসার ইনচার্জ ওসি নাসির উদ্দীন মৃধা বলেন, রাশেদুল ইসলাম গত দেড়মাস আগে কলারোয়া থানায় পুলিশের সাব ইন্সপেক্টর পদে যোগদান করেন। সকালে থানা পুকুরে গোসল করতে গিয়ে সাঁতার কাটার সময় হার্ট এ্যাটাক করে পুকুটের পানিতে ডুবে যায়৷ তাৎক্ষণিক কলারোয়া ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সকে সংবাদ দিলে ফায়ার সার্ভিস সিভিল ডিফেন্স স্টেশনের লিডার ওবায়দুল্লাহ’র নেতৃত্বে ফায়ার ফাইটার সাখাওয়াত হোসেন, আব্দুস সালাম ও ইমরান হোসেন পুকুর থেকে অচেতন অবস্থায় ভিকটিমকে উদ্ধার করে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে উন্নত চিকিৎসার জন্য নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে৷ তার পরিবারে স্ত্রী, দুই মেয়ে ও এক ছেলে রয়েছে বলে জানান ওসি৷
তিনি আরও জানান, প্রথমিক সুরতহাল ও ময়নাতদন্ত শেষে বাদ যোহর সাতক্ষীরা পুলিশ লাইনে মরহুমের জানাজা শেষে মৃতদেহটি তার পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হবে৷

সম্পর্কিত পোস্ট

মতামত দিন