সাতক্ষীরায় জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে প্রতিপক্ষরা

কর্তৃক ferozsatkhira
০ মন্তব্য 75 ভিউজ

নিজস্ব প্রতিনিধি ঃ সাতক্ষীরায় জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে প্রতিপক্ষরা। শনিবার (১১ জুন) বেলা ১১টার দিকে সদর উপজেলার লাবসা ইউনিয়নের থানাঘাটা গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় পাঁচজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরাও কয়েকজনের নামে সাতক্ষীরা সদর থানায় একটি এজহার জমা দিয়েছেন গুরুতর আহত সদর হাসপাতালে চিসিাধীন জমির মালিক জয়নাল আবেদীন (৫৫)। তিনি লাবসা ইউনিয়নের থানাঘাটা কলোনীপাড়া এলাকার মৃত গোলাম রাজ্জাকের ছেলে।
এজহার সূত্রে জনা গেছে, থানাঘাটা কলোনীপাড়া এলাকার জয়নাল আবেদীনের থানাঘাটা কাজিপাড়া এলাকায় ৫ কাটা জমি রয়েছে। সেই জমিতে তিনি একটি মহিলা এতিমখানা নির্মাণ করার সিদ্ধান্ত নেন। সেই অনুযায়ী তিনি সেখানে আজ কাজও শুরু করছিলেন। কাজ শুরুর এক পর্যায়ে পূর্ব থেকে ওৎ পেতে থাকা তার প্রতিপক্ষ থানাঘাটা কলোনীপাড়া এলাকার এ্যাপোলো, রাজন, সুমন হোসেন, এপ্যালোর স্ত্রী পারভীনা ও সুমন হোসেনের স্ত্রী পারুলসহ অজ্ঞাত আরও কয়েকজন জয়নাল আবেদীনকে একা পেয়ে দেশীয় অস্ত্র শস্ত্রে সজ্জিত হয়ে তার উপর অতর্কিত হামলা চালায়। একপর্যায়ে এ্যাপোলো তার হাতা থাকা লোহার রড দিয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে জয়নাল আবেদীনের মাথায় আঘাত করে গুরুতর হাড়ভাঙ্গা জখম করে। পরে উল্লেখিতরা সবাই মিলে তাকে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে বাম হাতে থ্যাতলানো জখমসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তজমাট-ফোলা জখম করে। তারা এ সময় তার জমিতে থাকা পাকা দেওয়াল ভেঙে আর্থিক ক্ষতিসাধনও করে। পরে আহত জয়নাল আবেদীনের আত্মচিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে এলে প্রতিপক্ষরা তাকে হত্যার হুমকি দিয়ে ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়। এরপর স্থানীয়রা তাকে দ্রুত উদ্ধার সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।
সাতক্ষীরা সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) বিশ^জিত অধিকারী জানান, অভিযোগ পাওয়ার পর ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। তদন্ত শেষে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।##

সম্পর্কিত পোস্ট

মতামত দিন