নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ২৫ বছর ধরে দখলী বসতভিটা থেকে উচ্ছেদের পায়তারার অভিযোগ পাওয়া গেছে সাতক্ষীরা আশাশুনি থানার কাদাকাটি ইউনিয়নের মেছের বেগের বিরুদ্ধে।
সরেজমিনে জানা যায়, আশাশুনির কাদাকাটি গ্রামের মৃত গহর আলী খদগিরির পুত্র আব্দুল হান্নান দীর্ঘ ২৫ বছর আগে একই এলাকার মৃত আরিফ বেগের পুত্র মেছের বেগের নিকট থেকে ২৫ শতক জমি ক্রয় করে। ক্রয়সূত্রে আব্দুল হান্নান উক্ত সম্পত্তিতে মাটি ভরাট করে তিন রুম বিশিষ্ট একটি একতলা বিল্ডিং বাড়ি, পাকা গোয়াল, রান্না ঘর, পুকুর ও বিভিন্ন ধরণের ফলজ ও বনজ বৃক্ষ রোপন করে উক্ত বসতভিটায় বসবাস করে আসছে। মেছের বেগ সম্পর্কে আব্দুল হান্নানের আত্মীয় হওয়ায় উক্ত বসত ভিটার ২৫ শতক জমি সম্পূর্ণ টাকা নিয়েও আজ দেই কাল দেই করে ২৫ বছর ধরে জমিটি তাহাকে রেজিষ্ট্রি করে দেই নাই। আব্দুল হান্নান যখন জমি রেজিষ্ট্রি করার জন্য তাকে চাপ প্রয়োগ করে তখন সে বিভিন্ন তালবাহানা করতে থাকে। আব্দুল হান্নান কোন উপায় না পেয়ে বিষয়টি স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের জানালে তারাও বিষয়টি নিয়ে একাধিকবার মিমাংসার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়। গত ৩০ এপ্রিল ২০২১ তারিখ সকাল ৮ ঘটিকার সময় প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসী ভূমিদশ্যূ মেছের বেগ লোহার রড, বাশের লাঠি, ধারালো দাঁ ইত্যাদি অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে তার বাহিনী নিয়ে আব্দুল হান্নানের বসত ভিটার মধ্যে প্রবেশ করে তাদেরকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে হান্নানের স্ত্রী কন্যার উপর হামলা চালায়। মেছের বাহিনীর হামলায় তার স্ত্রী গুরুতর আহত অবস্থায় আশাশুনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। অভিযোগের ভিত্তিতে আরো জানা যায়,মেছের বেগ আব্দুল হান্নানের স্ত্রীকে শ্লীতাহানীর চেষ্টা করে। এলাকাবাসীর সূত্রে জানা যায়, আব্দুল হান্নানের মত এই মেছের বেগ এলাকার আরো অনেকের নিকট থেকে জমি বিক্রয়ের উদ্দেশ্য টাকা পয়সা নিয়ে কাউকে জমি দেয় নাই। ইতিপূর্বে একই এলাকার মৃত আব্দুল মুজিদ গাজীর পুত্র শুকুর আলীর নিকট থেকে ১৬ শতক জমি বিক্রয় করার নাম করে টাকা নিয়ে জমি কবলা করে না দেওয়ার কারণে তার করা মামলায় মেছের বেগ হাজতবাস করে। যার মামলা নং- ০১, তারিখ- ০২/০৭/২০১৩। এলাকাবাসী এই ভূমিদশ্যূ, প্রতারক মেছের বেগের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবী করেছেন।

সম্পর্কিত পোস্ট

মতামত দিন