আক্তারুল ইসলাম সাতক্ষীরা ::
বেসরকারি এনজিও সংস্থা ছওয়াব বাংলাদেশ এই এনজিও সংস্থা ছওয়াব কলারোয়ায় হতদরিদ্রদের মাঝে মাহে রমজান উপলক্ষে ৩৫০ জন অসহায় মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছে বলে অপপ্রচার চালাচ্ছে। কিন্তু হতদরিদ্রদের মাঝে বিতরণ করার কথা থাকলেও এক সূত্রে জানাযায়, উন্নয়ন পরিষদ নামের এ এনজিও তাদের সদস্যদের মাঝে গোপনে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছে।
জানাযায়,কলারোয়া উপজেলার কয়লা ইউনিয়নের শ্রীপতিপুর উন্নয়ন পরিষদের কার্যালয়ে ওই খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়। খাদ্য সামগ্রীর মধ্যে ছিলো-১০কেজি চাল, ৫কেজি আটা, খেজুর ২কেজি, তেল ২লিটার, ডাল ২কেজি, ছোলা ১কেজি, চিনি ১কেজি, লবণ ১কেজি ও মসলা ৫০০ গ্রাম মোট ২৪ কেজি ৫০০ গ্রাম। এই খাদ্য সামগ্রী হতদরিদ্রদের মাঝে বিতরণ করার কথা থাকলেও উন্নয়ন পরিষদ নামের এনজিও সংস্থার সদস্যদের মাঝে বিতরণ করায় ব্যপক অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া যায়।
তাছাড়া শ্রীপতিপুর ওয়ার্ডের অনেক অসহায় মানুষ এই খাদ্য সামগ্রী পায়নি বলে অভিযোগ রয়েছে। এলাকাবাসীর দাবী এই খাদ্য সামগ্রী বিতরণের মাস্টার রোল দেখলে তা প্রকাশ হয়ে যাবে, যে কারা খাদ্য সামগ্রী পেয়েছেন।
এছাড়া ওই এলাকায় খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কালে এলাকাবাসী এনজিও সংস্থা উন্নয়ন পরিষদ ঘেরাও করে মালামাল বিতরণের মাস্টার রোল দেখতে চায়। এসময় তারা মাস্টার রোল দেখাতে ব্যর্থ হলে এনজিও সংস্থা উন্নয়ন পরিষদের কর্মকর্তা কর্মচারী ও এলাকাবাসীর মধ্যে হট্টোগোল ও হাতাহাতির সৃষ্টি হয়।
সেখান থেকে কিছু ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ না করে এনজিওর নিজেদের ভিতরে ভাগবাটয়া করে নিয়েছেন বলেও অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে ছওয়াব বাংলাদেশের এক প্রতিনিধি জানান-গত মঙ্গলবার (১৪ এপ্রিল) সকালে এনজিও সংস্থা উন্নয়ন পরিষদ মাহে রমজান উপলক্ষে কলারোয়ায় হতদরিদ্রদের মাঝে সুষ্ঠুভাবে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করবেন বলে তাদের ডেকে নিয়ে যান। সেখানে উন্নয়ন পরিষদের সদস্যদের মাঝে এই খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করবেন তা তারা জানতেন না। যার কারণে তারা এই খাদ্য সামগ্রী বিতরণের সময় এলাকাবাসীর তোপের মুখে পড়েন। আরও জানাগেছে,উন্নায়ন পরিষদের নির্বাহী পরিচালক আব্দুস সালামের বিরুদ্ধে মানুষের সাথে প্রতারনা,ত্রাণ আত্মসাৎ,বাইস্কোপের নামে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মাধ্যমে বেকার যুবক যুবতীদের প্রশিক্ষণের নামে সরকারী অর্থ আত্মসাৎ সহ নানা অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে এদিকে বেসরকারী সংস্থা উন্নয়ন পরিষদের পরিচালক আব্দুস সালাম এর মুঠো ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি জানান সঠিক ভাবে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে,এখানে কোন ধরনের অনিয়ম হয় নাই ।
এলাকাবাসী বিষয়টি সুষ্ট তদন্ত করে দূনীতিবাজ নামসবর্স্ব এনজিও বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা গ্রহনের জন্য এনজিও ব্যুরো ঢাকা ও জেলা প্রশাসক সাতক্ষীরার সুদৃষ্টি কামানা করেছেন।

সম্পর্কিত পোস্ট

মতামত দিন