সাতক্ষীরা সদরের ১৩টি ইউনিয়নে ভোটগ্রহন শেষ, বৈকারি ইউপিতে সংঘর্ষে প্রার্থীসহ আহত ১৪ জন,

কর্তৃক X88131psUBMW
০ মন্তব্য 204 ভিউজ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
বিপুল উৎসাহ ও উৎসবের আমেজে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ১৩ টি ইউনিয়নে একযোগে ভোট গ্রহন শুরু হয়েছে। সকাল থেকেই ভোট কেন্দ্রে নারী ও পুরুষ ভোটাররা দলে দলে আসতে শুরু করেন। তারা ভোট দিয়ে চলে যাচ্ছেন।
আজ বৃহস্পতিবার যে সব ইউনিয়নে ভোট গ্রহন চলছে সেগুলি হলো কুশখালি, বৈকারি, বাঁশদহা, লাবসা, শিবপুর, আগরদাঁড়ি, ফিংড়ি, ধুলিহর, ঘোনা, ব্রম্মরাজপুর, ভোমরা, বল্লী ও ঝাউডাঙ্গা ইউনিয়ন। এসব ইউনিয়নে ৬৪ জন প্রার্থী চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।
জেলা নির্বাচন অফিসার নাজমুল হাসান জানান মোট ১৮১ টি কেন্দ্রে ২ লাখ ৬৬ হাজার ৬৫৩ জন ভোটার ভোট দেবেন। এ জন্য পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে।
এদিকে ভোট গ্রহন শুরু হবার আগেইন বৈকারি ইউনিয়নের খলিলনগর কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আসাদুজ্জামান ওসলে এবং তার সমর্থক ও মটর সাইকেল প্রতিকের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী . আবু মোহাম্মদ মোস্তফার সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন ইউপি সদস্য প্রার্থী আজিজুর রহমান, মেহেদী হাসান দোলন,জামাল হোসেন,নৌকার প্রার্থী আসাদুজ্জামান ওছলে,তার ছেলে জহির রায়হান হৃদয়সহ উভয়ই পক্ষের অজ্ঞাত ১৪ জন।
আহতদের সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালসহ বিভিন্ন জায়গায় চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।
আহতদের মধ্যে গুরুতর আহত মেম্বার প্রার্থী মেহেদী হাসান দোলন বলেন আসাদুজ্জামান ওসলে ও তার সমর্থকরা নৌকার ভোট না দিলে ভোট কেন্দ্রে কাউকে ঢুকতে দেওয়া হবে বলে আমাদের উপর হামলা করে। এক পর্যায় উভয় পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি হয়। অছলেসহ তার ছেলে জহির রায়হান দলীয় লোকজন নিয়ে
আমাকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে ব্যাপক মারধর করে। এদিকে আসাদুজ্জামান ওছলে বলেন আমার উপর হামলা করে কেন্দ্র দখল করে নিয়েছে প্রতিপক্ষরা। জেলা নির্বাচন অফিসার বলেন এ সব বিষয়ে তার কাছে কোনো খবর নেই।

সম্পর্কিত পোস্ট

মতামত দিন